কাঁচা পেঁপের উপকারিতা

 

 

সারা বিশ্বে পেঁপে একটি অতি পরিচিত ফল। সবজি হিসেবেও এর বেশ কদর রেয়েছে। দেশীয় যেসকল ফল রয়েছে তাদের মধ্যে পেঁপে উন্নত, মানসম্মত, সুন্দর ও লোভনীয়ে একটি ফল।
আজ জানবো কাঁচা পেঁপের উপকারিতা

পেঁপে পাকা খেতে যেমন সুস্বাধু, তেমনি কাঁচা পেঁপেও বেশ স্বাস্থ্যকর। কাঁচা পেঁপে হচ্ছে ভিটামিনের আধার।
বিভিন্ন রকম অসুখে কাঁচা পেঁপে খুবই কার্যকর ভূমিকা রাখে।
পেটের নানা রোগবালাই সারাতে কাঁচা পেঁপে খুবই উপকারী।
তাছাড়াও আরও নানাবিধ স্বাস্থ্য সমস্যায় পেঁপের অনেক উপকারিতা রয়েছে।

আরো পড়ুন: জলপাইয়ের পুষ্টিগুণ

যারা মেদ কমাতে চান, তাঁরা অনায়েসে কাঁচা পেঁপে খেতে পারেন।কেননা পেঁপেতে অন্য ফলের তুলনায় অনেক বেশি ক্যারোটিন বিদ্যমান।
তাছাড়া, এই ফলে ক্যালরির পরিমান খুবই কম। নিচে পেঁপের নানাবিধ পুষ্টিগুণের কথা তুলে ধরা হল-

১. কোষ্টকাঠিন্য দূর করে :  পেঁপে একটি আঁশযুক্ত ফল, তাই এটি পাচন প্রক্রিয়া সহজ করে। যা স্বাস্থ্যকর হজমে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। এবং পেটে গ্যাস তৈরিতে বাঁধা প্রদান করে। তাছাড়া,  বদহজম ও কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা থেকে রক্ষা করে।

২.  হৃদরোগের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয় : পেঁপে রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণ করার পাশাপাশি রক্তের প্রবাহকে নিয়ন্ত্রণ করে। এটি শরীরের ভিতরকার সোডিয়ামের পরিমানণকে অনেকাংশে কমিয়ে দেয়।
যা হৃদরোগের সমস্যা সমাধানে অনন্য ভুমিকা পালন করে।  ফলে হৃদরোগের সমস্যা থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়।
আর একারণেই হৃদরোগীদের সবসময় পেঁপে খেতে বলা হয়।

কাঁচা পেঁপের উপকারিতা


৩. অতিরিক্ত ক্যালরি ও চর্বি কমিয়ে কমায়: এতে বিদ্যমান এন্টি-অক্সিডেন্ট অতিরিক্ত ক্যালরি ও চর্বির পরিমাণ কমিয়ে দেয়।
তাছড়াও 
পেঁপেতে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ই ও এ।
এগুলো ১০০ গ্রামে মাত্র ৩৯ ক্যালোরি দেয়। তাই মুটিয়ে যাওয়া থেকে বাচঁলে হলে প্রতিদিন কাঁচা পেঁপে খান। 

 

ভিজিট করুন: হেলথ বার্তা বিডি

৪. ডায়বেটিস থেকে মুক্তি: কাঁচা পেঁপে রক্তে চিনি কমিয়ে ইনুলিনের পরমাণ বাড়ায়। তাই যারা ডায়বিটিসে ভোগের, তার নিয়মিত কাঁচা পেঁপে খেতে পারেন।

৫. কিডনির সমস্যা দূর করে: পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম ও ভিটামিন ‘এ’, ‘সি’ ও ‘ই’ কিডনির সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে সহায়তা করে।
আর এ উপাদানগুলো কাঁচা পেঁপেতে প্রচুর পরিমান থাকে। তাই কিডনি রোগ থেকে মুক্তি পেতে নিয়ম করে কাঁচা পেঁপে খান।
৬. ত্বকের সমস্যা দূর করে : ব্রণ ও ত্বকের যে কোন সংক্রামক থেকে রক্ষা করে পেঁপের পুষ্টিগুন। পেঁপে ত্বকের ছিদ্র মুখগুলো খুলে দেয়। তাছাড়া, কাঁচা পেঁপে ত্বকের মরা কোষগুলোকে পুনজ্জ্বীবিত করে ।